নোটিশ :
জরুরী ভিত্তিতে সারাদেশে বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীগণকে সিভি, জাতীয় পরিচয়পত্রের স্কান কপি ও সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবির সাথে নিজের লেখা একটি সংবাদ ই-মেইলে পাঠাতে হবে। ই-মেইল :sidneynews24@gmail.com
শিরোনাম :
বোরহানউদ্দিনে মালয়েশিয়া প্রবাসী কাওসার মোল্লার প্রতারণা” হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি টাকা বোরহানউদ্দিন পক্ষিয়া ইউনিয়নে জাতীয় শোক দিবস পালন বোরহানউদ্দিনে টিকটক ফাতেমার হামলায় ভিক্ষুকসহ আহত -২ বোরহানউদ্দিনে বিদেশ প্রবাসীর স্ত্রীর উপর হামলার অভিযােগ বোরহানউদ্দিনে কোভিড-১৯ প্রতিরোধে টাউনহল মিটিং বোরহানউদ্দিনে জ্বীনের বাদশা সেজে প্রতারণা” হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি টাকা তেলের প্রভাব জলে” হতাশ বোরহানউদ্দিনে জেলেরা পুঠিয়া সাংবাদিক সমাজের কমিটি গঠন লিটন সভাপতি ও রেজা সাধারণ সম্পাদক এসডিজি ইয়ুথ সামিট ২০২২ এর রেজিস্ট্রেশন শুরু পুঠিয়া-বানেশ্বর আঞ্চলিক সড়কে নিম্রমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে কাজ করার অভিযোগ বিএসপিআই ‘র’ প্রতিষ্ঠাতা ও প্রিন্সিপাল – ইঞ্জিনিয়ার দিবাকর দে এর মা‌য়ের পরলোক গমন, শোক জানিয়েছেন (বিএসপিআই) পরিবার।  পুঠিয়ার গ্রামীণ হাসপাতালে শিশু ইউনিটের উদ্বোধন পুঠিয়ায় যুবলীগ নেতার অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল বিজ্ঞাপনের ঘড়িতে দশটা দশ বাজিয়ে রাখার রহস্য  বাংলাদেশ ব্যুরো প্রধানের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন সিডনি নিউজ সম্পাদক স্কুলের বেতন নিয়ে অভিভাবকদের চাপ নয়: শিক্ষামন্ত্রী ভোলায় এক মেয়েকে ধর্ষনের পর অন্য মেয়েকে বাল্য বিবাহ করেছে বিজিবি সদস্য প্রবাসীর ডায়েরি: মহামারীতে বেঁচে থাকার গল্প সিডনিতে করোনা আক্রান্ত একই পরিবারের ৪ বাংলাদেশি হাসপাতালে সৌদি আরব, ওমান সহযোগিতা আরও বাড়াতে সম্মত হয়েছে
প্রতারণা করে ব্যাংক ঋণ ভিটেমাটি হারাতে বসেছে ১৫ পরিবার

প্রতারণা করে ব্যাংক ঋণ ভিটেমাটি হারাতে বসেছে ১৫ পরিবার

প্রতারণা করে ব্যাংক ঋণ  ভিটেমাটি হারাতে বসেছে ১৫ পরিবার

 

মালিহা মুন্নি – আমতলী, বরগুনাঃ- তালতলী উপজেলার অগ্রণী ব্যাংক শাখা থেকে প্রতারণা করে অন্যের জমি মর্টগেজ দিয়ে ৫ লাখ টাকা সিসি ঋণ গ্রহণ করেছেন রাজ্জাক এন্টারপ্রাইজের মালিক শহীদ তালুকদার। ওই ঋণ পরিশোধ না করায় ঋণের বিপরীতে দেয়া জমি নিলামে উঠেছে। এতে ভিটেমাটি হারাতে বসেছে ১৫ অসহায় পরিবার। এমন অভিযোগ ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর। দ্রুত প্রতারণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে নিলাম বাতিলের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলো।

জানা গেছে, তালতলী উপজেলার হেলেঞ্চাবাড়িয়া গ্রামের রাজ্জাক তালুকদাদের ছেলে শহীদ তালুকদার মেসার্স রাজ্জাক এন্টারপ্রাইজের নামে তালতলী অগ্রণী ব্যাংক থেকে ২০১২ সালে ৫ লাখ টাকা সিসি ঋণ (৫২/১২) গ্রহণ করেন। ওই সিসি ঋণের বিপরীতে মোঃ শহীদ তার বাবা রাজ্জাক তালুকদারের ৭৮ নং মৌজায় ৫২,৭৭,৮০,১৯৩,১৯৭ ও জমা খারিজ ২৪১ নং খতিয়ানের ১৪৭৮, ১৪৭৯,১৪৮৩,১৭৮৪,১৪৯০,১৪৯১,১৪৯২,১৪৯৪,১৪৯৫,১৪৯৬,১৪৯৭,১৪৯৮,১৫২০ ও ১৫২১ নং দাগে ২ একর ৭১ শতাংশ জমির মটর্গেজ দেয়। ঋণ নেয়ার পর থেকে ওই ঋণ পরিশোধ করেননি তিনি। বর্তমান সুদে আসলে ব্যাংকে ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ৭৬ হাজার ৯৩২ টাকা। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ গত ২৯ সেপ্টেম্বর অর্থ ঋণ আদালত আইনের ২০০৩ এর ১২(৩) ধারা মোতাবেক ব্যাংকে মর্টগেজ দেয়া সম্পত্তির নিলাম দরপত্র আহ্বান করেন। কিন্তু তাতেও ঋণগ্রহীতার টনক নড়েনি। নিলাম দরপত্র আহ্বানের পরে বের হয় আসে প্রতারণার আসল চিত্র।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঋণের বিপরীতে ব্যাংকে দেয়া তফসিল সম্পত্তির ২ একর ৭১ শতাংশের জমির মধ্যে রাজ্জাক তালুকদার ১৯৯৬ থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত আবদুল খালেক মুসল্লি, মাজেদা বেগম, শাহজাহান আকন, রাহিমা বেগম ও মোঃ বেলাল হোসেনের কাছে ১ একর ৬৭ শতাংশ জমি ঋণ গ্রহণের আগেই বিক্রি করেছেন। কিন্তু ওই জমি ক্রয়কৃত মালিকরা তাদের নামে মিউটিশন করেনি। এই সুযোগে মোঃ শহীদ ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে ভুল বুঝিয়ে প্রতারণা করে ওই জমি মর্টগেজ দিয়ে ঋণ নিয়েছেন। গত ৭ বছরে ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ না করে গাঢাকা দেন তিনি। যোগাযোগ করলেও তিনি তাদের পাত্তা দেননি এমন অভিযোগ ব্যাংক কর্তৃপক্ষের। গত ২০ বছরে ওই জমিতে ১৫টি পরিবার বসতভিটা নির্মাণ করে করে বসবাস করে আসছে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওই সম্পত্তি নিলামের দরপত্র আহ্বানের পরে ভুক্তভোগী আশ্রাফ আলী তালুকদার, হারুন তালুকদার, মজিবর তালুকদার, রাসেল তালুকদার, ইউনুস তালুকদার, রেদওয়ান সরদার, নিজাম, বেলাল, শাহজাহান আকন, ইব্রাহিম জোমাদ্দার, খালেক মুসল্লি, বসির, নসু, জাকির ও শানু মিয়া বিপাকে পড়ে। ওই জমি নিলাম সম্পন্ন হলে জমিতে বসবাসরত অসহায় পরিবারগুলোকে পথে বসতে হবে এ অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলো। দ্রুত প্রতারণের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে নিলাম বাতিলের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলো।

 

এ বিষয়ে শাহজাহান আকন বলেন, ১৯৯৯ সালে রাজ্জাক তালুকদার আমার কাছে ওই জমি থেকে ৬১ শতাংশ জমি বিক্রি করেন। কিন্তু আমি ওই জমির মিউটিশন করাইনি। এই সুযোগে তিনি ও তার ছেলে শহীদ আমার জমি নিজের নামে দেখিয়ে প্রতারণা করে ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছে। এখন আমার জমি নিলামে উঠেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




এটি হাসনা ফাউন্ডেশনের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান, এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা,ছবি,অডিও,ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বেআইনি । copyright© All rights reserved © 2018 sidneynews24.com  
Desing & Developed BY ServerNeed.com