নোটিশ :
জরুরী ভিত্তিতে সারাদেশে বিভাগীয় ব্যুরো প্রধান, জেলা, উপজেলা, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ে সাংবাদিক নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীগণকে সিভি, জাতীয় পরিচয়পত্রের স্কান কপি ও সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবির সাথে নিজের লেখা একটি সংবাদ ই-মেইলে পাঠাতে হবে। ই-মেইল :sidneynews24@gmail.com
শিরোনাম :
Antivirus For Business Selecting the Best Electronic Data Place Software বোরহানউদ্দিনে অবৈধ ট্রাক্টর কেড়ে নিলো আরমানের জীবন বোরহানউদ্দিনে জেলেদের মাঝে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ বোরহানউদ্দিনে জমি দখল করতে সরকারি বরাদ্ধে নির্মিত বাজার ও মসজিদের টয়লেট ভেঙ্গে নিচ্ছে সাংবাদিকের কলমই পারে অপরাধীকে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিতে… প্রেসক্লাব সভাপতি অনু বোরহানউদ্দিনে শীত বস্ত্র বিতরণ করলেন ব্লাড ডোনার্স ক্লাব বোরহানউদ্দিনে সাংবাদিকের উপর প্রকাশ্য হামলা” ক্যামেরা ভাঙচুর বোরহানউদ্দিনে প্রকাশ্য বসতঘর দখল”তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে ভিক্টিমসহ সাংবাদিকদের উপর হামলা প্রথম দিনেই টিকিট বিক্রির মেশিনে ত্রুটি, আটকে গেল টাকা বালিয়াকান্দিতে নারীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ কঁচি ইচ্ছের বাগান – সৈয়দ মুন্তাছির রিমন মঙ্গলগ্রহে ৪৬ ফুট উঁচুতে উড়ে রেকর্ড রিজার্ভ থেকে ডলার চায় এফবিসিসিআই টুইটারের সিইওর পদ ছাড়ছেন ইলন মাস্ক ব্যালন ডি’অরে মেসিই ফেভারিট, লেভার স্বীকারোক্তি শ্যুটিং সেটে অভিনেত্রীর ‘আত্মহত্যা’: বিচ্ছেদ, অবসাদ নাকি “লাভ জিহাদের” বলি? আজ থেকে মেট্রোরেলে যাতায়াত করতে পারবেন যাত্রীরা গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট অগ্রযাত্রার মুকুটে আরেকটি পালক: প্রধানমন্ত্রী
স্বামী-স্ত্রীকে হাত-পা বেধেঁ নির্যাতন

স্বামী-স্ত্রীকে হাত-পা বেধেঁ নির্যাতন

সাজাদুর রহমান জাহিদ – রাজশাহী  প্রতিনিধি:- রাজশাহীর বাগমারার হামিরকুৎসা ইউনিয়নের কোনাবাড়িয়া গ্রামে স্ত্রীকে যৌন হয়রানীর প্রতিবাদ করায় স্বামী দিনমজুর জালাল উদ্দীন (৪২) ও স্ত্রী শাবানা বিবি (৩৩) কে রশি দিয়ে হাত-পা বেধেঁ ও ঝুলিয়ে পিটিয়ে জখম করেছেন প্রভাবশালী সেকেন্দার ও জেকের আলীসহ তাদের লোকজন।

খবর পেয়ে বাগমারা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্বামী জালাল উদ্দীনকে অজ্ঞান ও স্ত্রী শাবানা বিবিকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ওই ঘটনায় আহত শাবানা বিবি বাদী হয়ে ৭ জনকে আসামী করে বাগমারা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়েরের পর থেকেই দিনমজুর জালাল উদ্দীন তার পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন বলে মঙ্গলবার তার স্ত্রী শাবানা বিবি বাগমারা প্রেস ক্লাবে এসে সাংবাদিকদের সহযোগীতা কামনা করেছেন।

ভুক্তভোগী নারী শাবানা জানান, গত ২১ অক্টোবর সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের সময় সেকেন্দার আলী সেকেন (৪৫) ও তার ভাই জেকের আলী (৪২) পর্যায়ক্রমে তার বাড়িতে প্রবেশ করে তাকে যৌন হয়রানীর করে। স্বামী জালাল উদ্দীন বাড়িতে আসলে ঘটনাটি তিনি তাকে জানান। জালাল উদ্দীন অভিযুক্ত সেকেন্দার আলীর বাড়িতে গিয়ে স্ত্রীর যৌন হয়রানীর বিষয়টি জানতে চাইলে বাড়ির লোকজন জালাল উদ্দীনকে রশি দিয়ে বেধেঁ পিটিয়ে জখম করেন। জালাল উদ্দীন চিৎকার দিয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। বিষয়টি জানতে পেরে স্ত্রী শাবানা বিবি স্বামী জালাল উদ্দীনকে বাঁচানোর জন্য এগিয়ে গেলে সেকেন্দার ও জেকের আলীর নির্দেশে তাদের লোকজন তাকে শ্লীলতাহানী করেন এবং রশি দিয়ে খুটির সঙ্গে বেধেঁ নির্মম নির্যাতন করেন।

খবর পেয়ে এলাকার লোকজন তাদেরকে উদ্ধারে এগিয়ে গেলেও তাদের হাতে থাকার বিভিন্ন ধরনের ধারালো অস্ত্রের কারনে পিছু হটে। এলাকার লোকজন বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেনকে অবহিত করলে তার লোকজন ঘটনাস্থলে যায় এবং তাদেরকে সেকেন ও জেকের লোকজন ধাওয়া দিয়ে তাড়িয়ে দেয়।

ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিষয়টি বাগমারা থানার পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত নারী শাবানা ও অজ্ঞান অবস্থায় তার স্বামী জালাল উদ্দীনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। চিকিৎসা শেষ না হতেই প্রভাবশালীরা চিকিৎসকের সাথে যোগসাজসে তিন দিন পর একদিনের চিকিৎসার ছাড়পত্র দিয়ে হাসপাতাল থেকে বিদায় করে দেন। প্রভাবশালীদের কারনে এখনো বাড়িতে ফিরতে পারেনি নির্যাতিতার পরিবারের সদস্যরা। বাচ্চা নিয়ে অন্যের বাড়িতে রয়েছে বলে জানা গেছে। প্রভাবশালী সেকেন্দার ও জেকের বাড়ির দুই ব্যক্তি পুলিশের উচ্চ পর্যায়ে কর্মরত থাকায় তারা এলাকায় নানা ধরনের অপকর্ম করছে বলে এলাকার লোকজন জানান। এলাকার লোকজন ও নির্যাতিতা পরিবারের সদস্যরা এমন নির্মম নির্যাতনের বিচার দাবী করেছেন।

পরে হামিরকুৎসা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অনেক চেষ্টার পরে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের দিয়ে তাদের উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওই ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। এজাহার ভুক্ত এক আসামীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.




এটি হাসনা ফাউন্ডেশনের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান, এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা,ছবি,অডিও,ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বেআইনি । copyright© All rights reserved © 2018 sidneynews24.com  
Desing & Developed BY ServerNeed.com